ঢাকা রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২

শ্রমিক ছাঁটাই ও বেতন – ভাতা পরিশোধের বিষয়ে বিহা’র সংবাদ সম্মেলনে ভূল তথ্য প্রদান দাবী ও তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন।

বাংলাদেশ ইনারন্যাশানল হোটেলস এসোসিয়েশন (বিহা‘র) সংবাদ সম্মেলনে করোনাকালে হোটেল শ্রমিক-কর্মচারী ছাঁটাই ও বেতন-ভাতা প্রদান প্রসঙ্গে ভুল তথ্য পরিবেশনের নিন্দা এবং বেতন-ভাতা পরিশোধে প্রণোদনা দাবি। 

বাংলাদেশ ট্যুরিজম এন্ড হোটেলস ওয়ার্কার্স এমপ্লয়িজ ফেডারেশনের আহবায়ক রাশেদুর রহমান এবং সদস্য সচিব আহসান হাবিব বুলবুল সংবাদপত্রে প্রকাশের জন্য প্রেরিত বিবৃতিতে বলেন, বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল হোটলস এ্যসোসিয়েশন- বিহা গতকাল ২২ জুলাই ২০২০, ঢাকার একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলন করে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতিতে পর্যটন হোটেল সমুহের ব্যবসায়িক বিপর্যয়ের চিত্র, অর্থনৈতিক ক্ষতির পরিসংখ্যান এবং রাষ্ট্রিয় সহায়তা ও প্রণোদনার দাবি তুলে ধরেছেন। উক্ত সংবাদ সম্মেলনে ১২০০ পর্যটন হোটেলের ৩ লক্ষাধিক শ্রমিক-কর্মচারীর বেকার হয়ে যাওয়ার আশংকা প্রকাশ করা হয়েছে এবং করোনাকালে কোন শ্রমিক-কর্মচারী ছাঁটাই করা হয়নি বলে তথ্য দিয়ে শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধের জন্য ৫০০ কোটি টাকাসহ অন্যান্য প্রণোদনার দাবি করা হয়েছে। করোনা দুর্যোগে পর্যটন শিল্পকে রক্ষায় রাষ্ট্রীয় সহায়তার দাবি যৌক্তিক তবে করোনকালে কোন শ্রমিক ছাঁটাই করা হয়নি বলে যে তথ্য দেয়া হয়েছে তা ভূল। নেতৃবৃন্দ এই ধরনের ভূল তথ্য প্রদানের নিন্দা জানিয়ে বলেন, করোনাকালে লা মেরিডিয়ান, ফোর পয়েন্ট শেরাটন, হোটেল লেকভিউ প্লাজা, হলিডে ইন, কোয়ালিটি ইন, রেঁনেসাস সহ অসংখ্য হোটেল থেকে হাজার-হাজার শ্রমিক-কর্মচারীকে সম্পুর্ণ অমানবিক ভাবে ছাঁটাই করা হয়েছে। বড় অংশের হোটেলে এমনকি বিহা‘র অনেক নেতৃবৃন্দের মালিকানাধিন হোটেলেও শ্রমিক-কর্মচারীদের হয় অর্ধবেতনে কাজ করানো হচ্ছে অথবা বিনাবেতনে ছুটির কথা বলে বিগত ৪ মাস যাবত বেতন-ভাতা বাবদ কোন অর্থ পরিশোধ করা হচ্ছেনা।
নেতৃবৃন্দ, ঈদের আগেই হোটেল-রেঁস্তোরার শ্রমিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধে প্রণোদনা প্রদান এবং মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে হোটেল শ্রমিকদের বকেয়া বেতন-ভাতা পরিশোধ ও ছাঁটাইকৃত শ্রমিকদের পুনর্বহালের পাশাপাশি হোটেল-রেঁস্তোরা শ্রমিকসহ পর্যটন শ্রমিকদের ডাটাবেজ তৈরী এবং শ্রম অধিকারসমূহ নিশ্চিত করার দাবি জানান।